Science

১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি প্রকাশ। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক স্পেস রিসার্চ সেন্টার নাসা এই মহাবিশ্বের ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি প্রকাশ করেছে। বিস্তারিত দেখুন।

১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি: সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক স্পেস রিসার্চ সেন্টার নাসা এই মহাবিশ্বের ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি প্রকাশ করেছে। প্রায় ৪৩৮ কোটি বছর আগে বিগ ব্যাংয়ের মাধ্যমে আমাদের গ্যালাক্সির জন্ম। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে নাসা যে ছবি প্রকাশ করেছে সেটি এই মহাবিশ্বের জন্মের ও পূর্বের। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এই ছবি উন্মুক্ত করেছে। ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি নিয়ে সবাই কৌতুহলী। Read in English

Make Money Online With Mobile 2022

প্রতিদিন ফ্রি ১০০ টাকা মোবাইল রিচার্জ করুন অথবা বিকাশে টাকা নিন

পৃথিবীর জন্মের পূর্বের এই ছবি কিভাবে তোলা হলো তার পিছনের বিজ্ঞান সম্পর্কে জানতে সকলেই আগ্রহী। আমাদের আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আমরা ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি এবং এর পেছনের সকল গল্প বিস্তারিতভাবে এই নিবন্ধের মাধ্যমে জানাবো। বিজ্ঞান মহাকাশ নিয়ে অনেক সময় ধরে গবেষণা করছে। অসংখ্য গবেষণার ফল আমরা ইতিমধ্যে পেয়েছি। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে তোলা এই ছবিটি মহাবিশ্ব সম্পর্কে আমাদের ধারণা পরিবর্তন করেছে।

আশা করা যাচ্ছে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে আমরা পৃথিবীর এবং এই মহাবিশ্বের নানা অজানা জিনিস জানতে পারবো। হয়তো অদূর্ভবিষ্যতে আমরা এমন কিছু দেখতে পারবো অথবা জানতে পারবো যেগুলো সম্পর্কে আমরা কখনো কল্পনাও করিনি।

জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ

নাসার নেতৃত্বে ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা ও কানাডিয়ান স্পেন্স এজেন্সির মাধ্যমে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপটি তৈরি করা হয়েছে। বর্তমানে পৃথিবী থেকে অনেক দূরে অবস্থান করছে। পৃথিবী থেকে চাঁদ যত দূরে অবস্থিত তার চেয়েও চার গুণ দূরে অবস্থান করছে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ।

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়। 2022 সালে ফেসবুক থেকে আয়

নাসা, ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা এবং কানাডায়ন স্পেস এজেন্সি প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার খরচ করে এই ভীষণ দামি জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ তৈরি করেছে। এই পরিমাণ টাকা দিয়ে তিনটি পদ্মা সেতু তৈরি করা সম্ভব।১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি-1

পৃথিবীর অনেক দুরে অবস্থান করে এটি বহু দূরের গ্যালাক্সিপুঞ্জের ছবি তুলতে ব্যস্ত। সম্প্রতি এই টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে তোলা বেশ কিছু গ্যালাক্সি পুঞ্জের ছবি প্রকাশ হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এই ছবিগুলো ৪৬০ কোটি থেকে 1300 কোটি বছর এরও অনেক আগের।

SEE MORE

১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি

আমাদের মনে প্রশ্ন আসতেই পারে প্রায় ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি এই সময় এসে কিভাবে তোলা সম্ভব হলো। পৃথিবী এর জন্মের ও পূর্বের ছবি কিভাবে এই টেলিস্কোপ এর লেন্সে ধরা পরল। আপনি যদি আলোকবর্ষ সম্পর্কে জেনে থাকেন তাহলে এটি খুব সহজেই আপনি বুঝতে পারবেন। আমাদের এই মহাবিশ্বের কোন সীমানা নেই। একসময় মহাবিশ্ব বা গ্যালাক্সি মিল্ক কি ওয়ে সবগুলো একটি স্থানে পুঞ্জিভূত ছিল। বিগ ব্যাং এর মাধ্যমে এগুলো ছড়িয়ে পড়ে। বিগ ব্যাং এর গতি বা প্রসারণের বেগ এত বেশি ছিল যে সকল গ্রহ, গ্রহাণুপুঞ্জ এবং মিল্কিওয়ে দূর দূরান্তে ছড়িয়ে পড়েছে। আমরাও চলে এসেছি নতুন এক জায়গায়।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখবো? ফ্রিল্যান্সিং কি?

আমরা জানি আলো খুব দ্রুত চলতে পারে, সূর্যের আলো পৃথিবীতে পৌঁছতে প্রায় 8 মিনিট সময় লাগে। এক বছর সময় আলো যে দূরত্ব অতিক্রম করে তাকে বলা হয় এক আলোকবর্ষ। এমনই পৃথিবী থেকে অনেক দূরের নক্ষত্র রয়েছে এগুলো থেকে আলো এসে পৌঁছাতে কোটি কোটি বছর প্রয়োজন হয়। ১৩০০ কোটি আলোকবর্ষ দূরে এইসব ছায়াপথের আলো এতদিন পরে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপে এসে ধরা পড়ছে। যদিও আমরা ছবিটি এখন দেখতে পাচ্ছি কিন্তু এই ঘটনাটি প্রায় ১৩০০ কোটি বছর পূর্বের।

১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি কিভাবে তোলা হলো?

গত ২৫ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ মহাকাশে তার যাত্রা শুরু করে। পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্বের ও প্রায় চার গুণ বেশি দূরত্ব অবস্থান করছে জেমস টেলিস্কোপটি। এই টেলিস্কোপ টি মূলত দুইটি কাজের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। যার একটি হল তার নির্দিষ্ট স্থানে অবস্থান করে পৃথিবী তৈরির পূর্বের বা এমন ১,৩০০ বা ১,৪০০ কোটি বছর পূর্বের মহাবিশ্বের ছবি তোলা। এবং এই টেলিস্কোপের আরেকটি কাজ হল পৃথিবীর ছাড়া মহাবিশ্বের অন্য কোন স্থানে প্রাণ ধারন সম্ভব কিনা তা পর্যবেক্ষণ করা।১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি-3

আমরা যখন কোন বস্তুর দিকে তাকাই সেই বস্তুটি থেকে বিচ্ছুরিত আলো আমাদের চোখে এসে পড়লে আমরা সেটিকে দেখতে পাই। ছবিতে যে নক্ষত্র বা গ্রহাণুপুঞ্জ দেখানো হয়েছে সেগুলো পৃথিবী থেকে অনেক অনেক দূরে অবস্থিত। সেগুলোর বিচ্ছিড়িত আলো ভ্রমণ করতে করতে প্রায় ১৩০০ কোটি বছর পরে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপে এসে ধরা পড়ছে। আর আমরা সেই তেরোশ কোটি বছর পূর্বে গ্রহ বা গ্রহাণুপুঞ্জ গুলো দেখতে পাচ্ছি।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শুরু করবেন। ফ্রিল্যান্সিং এর যত নিয়ম।

জেমস ওয়েব টেলিস্কোপের তোলা মহাবিশ্বের ছবি

আমেরিকার বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডে নাসার জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে তোলা মহাবিশ্বের প্রায় ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি প্রকাশ করেছে। আপনারা যারা এই ছবিগুলো দেখতে চান অথবা ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি দেখতে আগ্রহী তারা নিচের এই ছবিগুলো দেখুন।

SEE MORE PHOTO

উপরের ছবিগুলোতে যে উজ্জ্বল সাদা আলো দেখা যাচ্ছে সেগুলো আমাদের ছায়াপথের তারা। আর অনেক দূরের গ্যালাক্সি গুলোকে এখানে দেখা যাচ্ছে লাল অথবা লালচে রঙের। পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের যে গ্যালাক্সি রয়েছে ৪৬০ কটি আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত। আর অনেক দূরের গুলো প্রায় ১,৩০০ কোটি আলোক বছর দূরে অবস্থিত।১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি-2

আমাদের হাতের তর্জনের উপর একটি বালু কণা রেখে বাহু টিকে আকাশের দিকে প্রসারিত করলে বালুর কণাটি আকাশের যেটুকু স্থান দখল করে বা ঢেকে রাখে ঠিক সেইটুকু স্থানের ছবি এটি। সেখানে প্রায় ১০ হাজার গ্যালাক্সি রয়েছে।

ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়। 2022 সালে ফেসবুক থেকে আয়

হাবল টেলিস্কোপ এবং জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ

প্রায় ১০০ বছর পূর্বে বিজ্ঞানী এডউইন হাবলের হাত ধরেই আমরা সর্বপ্রথম জানতে পেরেছি সৃষ্টির পর পরই গ্যালাক্সি গুলো চারদিকে ছড়িয়ে পড়ছে এবং ধীরে ধীরে মহাবিশ্ব সম্প্রসারিত হচ্ছে। বিজ্ঞানী অ্যালবার্ট আইনস্টাইন তার আপেক্ষিকতার সূত্রের মাধ্যমে জানিয়েছেন যে এই সম্প্রসারণের কারণে অনেক দূর থেকে আমাদের দিকে যে আলো আসে তার তরঙ্গ দৈর্ঘ্য ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। অর্থাৎ কখনো কখনো নীল রঙের আলো ক্রমাগত লাল রঙের আলোতে পরিণত হয়ে যায়।১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি

সর্বপ্রথম বিজ্ঞানী এডউইন হাবল হাবল টেলিস্কোপ তৈরি করেন এবং তার মাধ্যমে মহাবিশ্বের পুরনো ছবি প্রকাশ করা হয়। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে তোলা যে ছবি প্রকাশ করা হয়েছে টা তাহা বল টেলিস্কোপ এর চেয়ে অনেক পরিষ্কার এবং উন্নত। গ্যালাক্সির চারপাশে যে পরিমাণ ধুলা রাশি সেগুলো চোখে দেখার আলোকে শুষে নেয় এবং ইনফ্রারেড আলো বিকিরণ করে। তাই আমরা খালি চোখে এই বস্তুগুলো দেখতে পাই না। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এমন আলোতেই কাজ করে।

শেষ কথা / উপসংহার

বিজ্ঞান প্রতিনিয়ত এগিয়ে চলছে। প্রতিনিয়ত আমরা এমন সব তথ্য জানতে পারছি যেগুলো আগে কল্পনা করা ও সম্ভব হয়নি। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে আমরা এই সময় বসে ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি দেখতে পাচ্ছি। বিজ্ঞানীরা আশা করছে শুধুমাত্র ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি ই নয়, জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে এমন কিছু দিগন্ত উন্মোচন হবে যা পৃথিবীর জন্য ল্যান্ডমার্ক হয়ে থাকবে। হয়তো ভবিষ্যতে আমরা এমন কিছু দেখতে পাবো যা মহাবিশ্ব সম্পর্কে আমাদের সকল ধারণাকে পরিবর্তন করে দিবে।

আমাদের এই মহাবিশ্ব সম্পর্কে অনেক অজানা জিনিসকে নতুন ভাবে জানার জন্য নাসা সহ বিভিন্ন স্পেস ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তাদের এই কষ্টের ফলাফল আমরা হাতেও পাচ্ছি। জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে তোলা ১৩০০ কোটি বছর আগের মহাবিশ্বের ছবি টি তার একটি প্রমাণ। এভাবেই এগিয়ে যাবে পৃথিবী হয়তো বা এই অসীম মহাবিশ্বে কোন একদিন মানুষ ছাড়াও অন্য প্রাণের সন্ধান মিলবে।

Akash

I am Akash Mahmud and I am a Graduate. I love to write articles. I am friendly and helpful. You will get your required information here. Keep Supporting Us.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Please Turn Off Adblocker to Get Your Information