Others

সিভি লেখার নিয়ম। কিভাবে একটি আকর্ষণীয় সিভি তৈরি করবেন

একটি আকর্ষণীয় সিভি তৈরী করার সকল সম্ভাব্য নিয়মসমুহ এই আর্টিকেল এ উল্লেখ করা হয়েছে। বিস্তারিত জেনে নিন।

সিভি লেখার নিয়ম: বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে চাকরি জীবনে সিভি (CV) Curriculum Vitae বা জীবন বৃত্তান্ত খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। সরকারি, বেসরকারি যে কোন চাকরির ক্ষেত্রে সিভি প্রয়োজনীয়। তবে বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রে সিভির গুরুত্ব সবথেকে বেশি। যে কোন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী পেতে একটি মানসম্মত সিভি (CV) আপনাকে অনেকটাই এগিয়ে রাখতে সাহায্য করে।

সিভি দিয়ে এমপ্লয়ার (Employer) কে আকর্ষিত করা যায়। প্রথম দেখাতেই আপনার সিভি যদি এমপ্লয়ার (Employer) এর পছন্দ না হয় তাহলে আপনার চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তাই বলা যায় একটি মানসম্মত সিভি চাকুরীর প্রত্যাশা অনেকটাই বাড়াতে পারে।

আমরা আমাদের আজকের আলোচনার মাধ্যমে আপনাদের জানাব কিভাবে খুব সুন্দর ভাবে একটি সিভি বানাবেন। সিভিতে প্রয়োজনীয় সকল তথ্য গুলো অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে। নিজের সিভি নিজেই বানানো উত্তম। আমরা আজকে আমার তোমাদের জানাব কিভাবে খুব সহজেই আপনি নিজের সিভি বানাতে পারবেন।

মোবাইল দিয়ে আয়ের উপায় 2022

সিভি কি? সিভি বলতে কী বোঝায়?

CV বা Curriculum Vitae হল একজন ব্যক্তির শিক্ষা ও চাকরি জীবনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সংক্ষিপ্ত তথ্য। সাধারণ সিভি ২ পাতার হয়ে থাকে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ইংরেজী ভাষায় সিভি লেখা হলো বর্তমানে বাংলাতেও অনেক সময় সিভি প্রয়োজন হয়। সিভি লেখার নিয়ম। 

বাংলাদেসে CV এবং Resume কে একই অর্থে ব্যবহার করা হলেও দুইটার মধ্যে কিছুটা পার্থক্য বিদ্যমান। CV সাধারণত চাকরি ছাড়াও বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যায় তবে Resume শুধুমাত্র নির্দিষ্ট চাকরির জন্য বানানো এবং ব্যবহার করা হয়ে থাকে। সিভির কোন লিমিটেশন হয় না। আপনার জীবনের সকল চাকরির অভিজ্ঞতা শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং বাকি সকল প্রাপ্তি আপনি শেয়ার করতে পারেন। তবে রিজিউম এর ক্ষেত্রে শুধুমাত্র নির্দিষ্ট চাকরির জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য এবং প্রাসঙ্গিক বিষয় উল্লেখ করতে হয়।

সিভি (CV) তে কি কি থাকতে হবে?

বিভিন্ন ধরনের চাকরি অনুযায়ী সিভির কিছু অংশ পরিবর্তন করা যায়। প্রয়োজন অনুযায়ী সেগুলো নিজের মত করে নিতে হবে। তবে এমন কিছু তথ্য রয়েছে যেগুলো অপরিবর্তনশীল এবং প্রতিটি সিভির ক্ষেত্রেই প্রয়োজনীয়। নিচে একটি সিভি তে কি কি তথ্য থাকা প্রয়োজন তা লিস্ট অনুযায়ী দেয়া হলো।

নাম ও ঠিকানা: (Name and Address)

শিক্ষাগত সনদ অনুযায়ী আপনার আসল এবং পূর্ণ নাম ও ঠিকানা সিভিতে লিখতে হবে। এখানে আপনার মোবাইল নম্বর এবং বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক এর লিংক প্রদান করতে পারেন। এবং সিভিতে অবশ্যই আপনার ইমেইল এড্রেস সংযুক্ত করবেন। ইমেইল এড্রেস প্রদান করার ক্ষেত্রে আপনার পূর্ণ নাম দিয়ে একটি ইমেইল বানাবেন।

ক্যারিয়ারের উদ্দেশ্য: (Career Objectives)

আপনি যে পদের জন্য আবেদন করছেন সে পদে চাকরি হয়ে গেলে আপনি কিভাবে তা পালন করবেন এবং আপনার উদ্দেশ্য কি থাকবে সে বিষয়ে সংক্ষিপ্ত তথ্য প্রদান করুন।

কাজের অভিজ্ঞতা: (Work Experience)

সিভির সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো কাজের অভিজ্ঞতা বা (Experience)। আপনি যে সকল প্রতিষ্ঠানে কাজ করেছেন, যে পদে এবং যেসব কাজ করেছেন তা এই অংশে সংক্ষেপে উল্লেখ করতে হবে। আপনি যে পদের জন্য আবেদন করেছেন সে পদের প্রাসঙ্গিক তথ্য সমূহ উল্লেখ করুন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: (Educational Qualification)

আপনার সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার ফলাফল উল্লেখ করুন। এসএসসি থেকে শুরু করে পরের সকল ডিগ্রীগুলো ইনস্টিটিউটের নাম সরকারের সুন্দরভাবে উপস্থাপন করুন। কোন সালে কোন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেন সেগুলো অবশ্যই তুলে ধরবেন।

কম্পিউটার দক্ষতা: (Computer Skill)

আপনার কম্পিউটারের দক্ষতা সম্পর্কিত তথ্য উল্লেখ করুন। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। বর্তমানে সকল কাজই কম্পিউটার নির্ভর। তাই কম্পিউটার বিষয়ে আপনার সকল দক্ষতা সুন্দর ভাবে উল্লেখ করুন।

ভাষাগত দক্ষতা: (Language Efficiency)

আপনার কোন কোন ভাষার ওপর দখল আছে তা সুন্দরভাবে উল্লেখ করতে হবে। আপনি যে সকল ভাষা সুন্দরভাবে বলতে লিখতে এবং পড়তে পারেন সেগুলো যোগ করবেন।

অন্যান্য দক্ষতা: (Other Skills)

আপনার অন্যান্য কোন দক্ষতা থেকে থাকলে অবশ্যই সিভিতে সেগুলো সংক্ষেপে উল্লেখ করবেন।

রেফারেন্স: (Reference)

সিভির এই অংশে অবশ্যই এমন 2 অথবা 3 জনের নাম প্রদান করবেন যারা আপনাকে ভালোভাবে চেনে কিন্তু তাদের সাথে আত্মীয়তার কোন সম্পর্ক নেই। আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের রেফারেন্স প্রদান করতে পারেন।

ছবি সংযোজন: (Photo)

শিবির ওপরের অংশে সদ্য তোলা একটি ফর্মাল পাসপোর্ট সাইজের ছবি সংযুক্ত করবেন। অবশ্যই ছবি যথেষ্ট ফর্মাল হতে হবে।

স্বাক্ষর ও তারিখ: (Signature and Date)

সিভি সর্বশেষ অংশে আপনার স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি এবং তারিখ যুক্ত করবেন।

সিভির ফরম্যাট কেমন হওয়া প্রয়োজন?

আপনার সিভি অবশ্যই আকর্ষণীয় হতে হবে। এবং আকর্ষণীয় করার জন্য যা যা প্রয়োজন সেই ভাবে সিভি তৈরি করতে হবে। নিম্নোক্ত ফরম্যাট অনুযায়ী সিভি তৈরি করলে তার যথেষ্ট সুন্দর এবং আকর্ষণীয় হবে। সিভি লেখার নিয়ম।

সিভির দৈর্ঘ্য:

চেষ্টা করবেন যেভাবেই হোক আপনার সিভি (CV) পাতার মধ্যে শেষ করতে। যত সম্ভব সংক্ষেপে আপনার সকল তথ্য উল্লেখ করতে হবে।

কাগজের সাইজ:

আপনি যেভাবেই সিভি পাঠান না কেন অবশ্যই A4 সাইজের পেজে সিভি লিখতে হবে। এবং সিভির চারপাশে মার্জিনের জন্য পর্যাপ্ত ফাঁকা জায়গা রাখতে হবে।

ফন্ট:

সিভির ফন্ট যথেষ্ট ফরমাল হতে হবে। ফন্ট ফরমাল রাখার জন্য আপনি Calibri, Arial বা Times new roman এই তিনটি ফন্টের ব্যবহার করতে পারেন। ফন্টের সাইজ অবশ্যই 10 থেকে 12 মধ্যে রাখবেন। হেডলাইন এর ক্ষেত্রে 14 বা 16 সাইজের ফন্ট ব্যাবহার করে সেটিকে বোল্ড করে দিতে পারে না।

গ্রামার ও অন্যান্য:

আপনার সিভিটি হতে হবে একদম নির্ভুল। কোন প্রকার ভুল সিভি তে থাকা যাবেনা। বানানের দিক থেকেও অনেক গুরুত্ব প্রদান করবেন।

সিভি লেখার নিয়ম

সিভি লেখার নিয়মঃ বর্তমান সময়ে সিভি লেখাটা আগের চেয়ে অনেক সহজ। নতুন নতুন পদ্ধতিতে আপনি খুব সহজেই কম সময়ের মধ্যে একটি পূর্ণাঙ্গ সিভি বানিয়ে ফেলতে পারবেন। সিভি বানানোর সহজ পদ্ধতি সমূহ নিচে দেয়া হল- 

এমএস ওয়ার্ড এর মাধ্যমে সিভি তৈরি করা:

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই সিভি তৈরি করতে পারবেন। এখন মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে বাইডিফল্ট অনেক ফরমেট প্রদান করা থাকে। সেগুলো থেকে যেকোনো একটি ব্যবহার করে সিবি বানিয়ে ফেলতে পারেন।

সিভি বিল্ডিং ওয়েবসাইট থেকে বানানো:

বর্তমানে অসংখ্য সে বিল্ডিং ওয়েবসাইট রয়েছে যারা ফ্রী তে সিভি সার্ভিস প্রদান করে। আপনি গুগল সার্চ করলেই এই ধরনের ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন। যেকোনো একটি ওয়েবসাইট থেকে আপনি সাহায্য নিয়ে সিভি বানিয়ে ফেলতে পারেন।

মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমে সিভি বানানো:

অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএস মোবাইলে বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করে সিভি লিখতে পারেন। সিভি লিখার জন্য অ্যাপ ডাউনলোড করে যে কোন ফরম্যাট ব্যবহার এর মাধ্যমে আপনার সিভি তৈরি করে ফেলতে পারেন।

শেষ কথা

বর্তমান চাকরির বাজারে একটি সিভি (CV) অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি ডকুমেন্ট। একটি সুন্দর এবং পরিমার্জিত সিভি আপনাকে চাকরি পেতে সহায়তা করবে। তাই চাকরির বাজারে প্রবেশের পূর্বেই সুন্দরভাবে সিভি বানানো শিখে রাখবেন। কিভাবে একটি সুন্দর এবং পরিমার্জিত সিভি সহজেই বানাতে পারবেন সে সকল তথ্য আমাদের আজকে আলোচনায় উল্লেখ করা হয়েছে। এই বিষয়ে যে কোন তথ্য জানতে চাইলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমাদের সাথে থাকার জন্য সকলকে ধন্যবাদ।

Akash

I am Akash Mahmud and I am a Graduate. I love to write articles. I am friendly and helpful. You will get your required information here. Keep Supporting Us.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Please Turn Off Adblocker to Get Your Information